ভাজিব ডিম্ব, খাইব সুখে

রুম্পা দাস
আপামর ডিমপ্রেমীদের জন্য এলগিন রোডে কিছু দিন হল চালু হয়েছে থিম রেস্তোরাঁ ‘এগিটেরিয়ান’। পুজো স্পেশ্যাল নতুন মেনু তো ছিলই। এ বার এগিটেরিয়ানের তরফে সমস্ত ডিম-প্রেমীদের জন্য রইল কিছু বিজয়া স্পেশ্যাল রেসিপি।
 
ডেভিল্‌ড এগ প্ল্যাটার
 
উপকরণ:
 
ডিম— ৪টি
পেঁয়াজ— ১টি
কালো অলিভ— কয়েকটি
হ্যালাপিনো— ১টি
ট্যাবাস্কো সস— ১ টেবিল চামচ
পেস্তো সস— ১ টেবিল চামচ
নুন— স্বাদ মতো
গোলমরিচ— আধ চা চামচ
পার্সলে পাতা— কয়েকটি
বেসিল পাতা— কয়েকটি
 
প্রণালী:
 
ডিমগুলো ভাল করে সেদ্ধ করে নিন। লম্বালম্বি সেদ্ধ কের রাখা ডিমগুলি অর্ধেক করে চিরে কুসুম বের করে নিন। একটি বাটিতে একসঙ্গে পেঁয়াজ, হ্যালাপিনো ও কালো অলিভ কুচিয়ে নিন। কুসুমের মিশ্রণটিকে সমান দু’ভাগে ভাগ করে নিন। একটি ভাগে পেস্তো সস, নুন ও গোলমরিচ মেশান। কুসুমের অবশিষ্ট অংশটিতে ট্যাবাস্কো সস, নুন ও গোলমরিচ মেশান। এ বার দু’টি পাইপিং ব্যাগে আলাদা আলাদা করে পেস্তো মেশানো কুসুম ও অন্যটিতে ট্যাবাস্কো সস মেশানো কুসুম ভরে নিন। ডিমের সাদা অংশের ভিতরে পাইপিং ব্যাগ দিয়ে ধীরে ধীরে মনের মতো ডিজাইন করে সস ভরা কুসুম ভরে দিন। উপর থেকে পার্সলে পাতা কুচি ও বেসিল পাতা কুচি ছড়িয়ে পরিবেশন করুন ডেভিল্‌ড এগ প্ল্যাটার।
 
(বাড়িতে বেসিল পাতা, রসুন, চিনে বাদাম, অলিভ অয়েল, গোলমরিচ গুঁড়ো, নুন আর পেকরিনো চিজ দিয়ে সহজেই বানিয়ে ফেলতে পারেন পেস্তো সস। পেকরিনো চিজ না পেলে সহজলভ্য যে কোনও চিজ ব্যবহার করতে পারেন। ট্যাবাস্কো সস বানাতে একসঙ্গে মিশিয়ে নিতে পারেন ভাপিয়ে নেওয়া ট্যাবাস্কো লঙ্কা অথবা লাল লঙ্কা অথবা হ্যালাপিনো, রসুন, পেঁয়াজ, নুন, গোলমরিচ, তেল আর ভিনিগার।)
বেকন র‌্যাপ্‌ড এগ
 
উপকরণ:
 
ডিম— ৩টি
বেকন— ৬টি
হল্যান্ডেইজ সস— ৬ টেবিল চামচ
পার্সলে পাতা— কয়েকটি
নুন— স্বাদ মতো
গোলমরিচ গুঁড়ো— ১ চা চামচ
লাল বাঁধাকপি— সাজানোর জন্য
 
প্রণালী:
 
ডিম ভাল করে সেদ্ধ করে লম্বালম্বি চিরে নিন। একটি ননস্টিক পাত্র গরম করে বেকন মুচমুচে করে ভেজে তুলুন। সেদ্ধ চিরে রাখা ডিমের টুকরোগুলো ভেজে রাখা বেকনে মুড়ে নিন ভাল করে। উপর থেকে স্বাদ মতো নুন ও গোলমরিচ ছড়িয়ে দিন। হল্যান্ডেইজ সস নিয়ে কুসুমের উপরে দিন। উপর থেকে পার্সলে পাতা কুচি সাজিয়ে দিন। লাল বাঁধাকপির পাতা কুচনো ছড়িয়ে গরম গরম পরিবেশন করুন বেকন র‌্যাপ্‌ড এগ।
 
(বাড়িতে হল্যান্ডেইজ সস বানাতে চান? ডিমের কুসুম, লেবুর রস, লঙ্কা গুঁড়ো মিশিয়ে নিন একসঙ্গে। গলানো মাখন ডিমের কুসুমে দিয়ে ভাল করে মেশাতে থাকুন। ২০ থেকে ৩০ সেকেন্ডের জন্য মাইক্রোওভেনে সেই মিশ্রণ গরম করুন। আরও এক বার ভাল করে ফেটিয়ে নুন ও গোলমরিচ গুঁড়ো ছড়িয়ে নিলেই তৈরি হল্যান্ডেইজ সস।)
 
এগ ব্রেড উইদ সসেজ অ্যান্ড ফ্রেঞ্চ ফ্রাইজ
 
উপকরণ:
 
পাঁউরুটি— ৪টি
ডিম— ২টি
পেঁয়াজ— ১টি
কাঁচা লঙ্কা— ১টি
চিকেন সসেজ— ২টি
বড় আলু— ২টি
নুন— স্বাদ মতো
গোলমরিচ গুঁড়ো— ১ টেবিল চামচ
তেল— প্রয়োজন মতো
মেয়োনিজ— ৪ টেবিল চামচ
টোম্যাটো কেচাপ— ৪ টেবিল চামচ
 
 
প্রণালী:
 
পাঁউরুটির চারপাশ ভাল করে কেটে বাদ দিন। একটি বাটিতে ডিম ফেটিয়ে নিন। তাতে পেঁয়াজ কুচি, কাঁচা লঙ্কা কুচি, নুন ও গোলমরিচ গুঁড়ো মিশিয়ে ফেটিয়ে নিন। পাঁউরুটি ডিমে চুবিয়ে গরম তেলে লালচে করে ভেজে তুলে নিন। একটি চ্যাটালো ননস্টিক পাত্রে তেল গরম করুন। তাতে নুন ও গোলমরিচ গুঁড়ো মাখিয়ে চিকেন সসেজ ভেজে তুলে নিন। অন্য দিকে আলু লম্বালম্বি কেটে ঠান্ডা জলে আধ ঘণ্টা ভিজিয়ে রাখুন। সামান্য নুন ছড়িয়ে আলু ডুবো তেলে মিনিট পাঁচেক ভেজে তুলে নিন। কিচেন টাওয়ালের ভিতরে ওই আধ ভাজা আলু মুড়ে অতিরিক্ত তেল বের করে নিন ও ঠান্ডা হতে দিন। আলু ঠান্ডা হয়ে গেলে ফুটন্ত তেলে আরও মিনিট পাঁচেক আলু মুচমুচে করে ভেজে তুলে নিন। উপর থেকে গোলমরিচ গুঁড়ো ছড়িয়ে নিন। এ বার মেয়োনিজ ও টোম্যাটো কেচাপের সঙ্গে সাজিয়ে পরিবেশন করুন ডিম-পাঁউরুটি, সসেজ ও ফ্রেঞ্চ ফ্রাই।
 
(ইচ্ছে হলে সামান্য ময়দা, রসুন গুঁড়ো, পেঁয়াজ গুঁড়ো, লঙ্কা গুঁড়ো, নুন, গোলমরিচ গুঁড়ো ও অল্প জল দিয়ে তৈরি একটি মিশ্রণে আলু ডুবিয়ে ছাঁকা তেলে ভেজে নিতে পারেন।)
 
ফ্রেঞ্চ টোস্ট
 
উপকরণ:
 
স্যান্ডউইচ ব্রেড— ২টি
দুধ— ১ কাপ
ডিম— ১টি
ভ্যানিলা এসেন্স— আধ চা চামচ
গুঁড়ো চিনি— ৩ টেবিল চামচ
জায়ফল গুঁড়ো— এক চিমটে
মাখন— ভাজার জন্য
চকোলেট সস— প্রয়োজন মতো
ভ্যানিলা আইসক্রিম— ২ স্কুপ
পুদিনা পাতা— কয়েকটি
 
প্রণালী:
 
স্যান্ডউইচ ব্রেডের চারপাশ কেটে নিন। একটি বাটিতে দুধ, ডিম, ভ্যানিলা এসেন্স, গুঁড়ো চিনি ও জায়ফল গুঁড়ো মিশিয়ে একসঙ্গে ফেটিয়ে নিন। ননস্টিক পাত্রে মাখন গরম করুন। পাঁউরুটি দুধ-ডিমের মিশ্রণে ডুবিয়ে মাখনে লালচে করে ভেজে তুলে নিন। ভাজা পাঁউরুটি কোনাকুনি ত্রিকোণ করে কেটে নিন। পরিবেশন করার পাত্রে একটি একটি করে থাকে থাকে ফ্রেঞ্চ টোস্ট সাজিয়ে দিন। তার উপরে ভ্যানিলা আইসক্রিম ও চকোলেট সস ছড়িয়ে দিন। সমস্ত কিছুর উপরে সামান্য গুঁড়ো চিনি ছড়িয়ে ও পুদিনা পাতা সাজিয়ে পরিবেশন করুন ফ্রেঞ্চ টোস্ট।
 
(ছবিগুলি তুলেছেন শুভেন্দু চাকী)
 

সর্বশেষ সংবাদ

ভিড়ের মধ্যে ঘুরে ঘুরে ঠাকুর দেখতে ভাল লাগে না। তার থেকে অনেক ভাল লাগে আড্ডা।
আমাদের ছোটবেলাটা ছিল সব পেয়েছিল দেশ। তখন যা চাইতাম তাই পেতাম।
ভাইকে এ বছর ভাইফোঁটাতে কী দেবেন ভেবেছেন? চলুন দেখি কিছু উপহারের নমুনা।
থাকছে অসংখ্য সিসি ক্যামেরার নজরদারি।
আজ কালীপুজো। দীপাবলির আলোয় সেজেছে চারিদিক।
শুধু কালীঘাট কিংবা দক্ষিণেশ্বর নয়। এ শহরে ছড়িয়ে রয়েছে ছোট বড় অসংখ্য কালীমন্দির।
বাজি পোড়ানোর সময় কিছু সাবধানতা নিতে বললেন চক্ষুরোগ বিশেষজ্ঞ ডা নন্দিনী রায় ও চেষ্ট ফিজিশিয়ান ডা সুস্মিতা রায়চৌধুরি।
মোমপ্রদীপ ও ফ্যান্সি প্রদীপের চাহিদা