নতুন জামায় খাবারের দাগ ? মন খারাপ না করে জেনে নিন উপায়

প্রমা মিত্র
stain

পুজো সাজ মানেই নতুন জামা আর জমিয়ে খাওয়া। অনেক ভেবে চিন্তে কোন পোশাক ট্রেন্ড করছে দেখে নিয়ে, নিজের পছন্দের রং মতো বেছে নিয়েছেন নতুন জামা, নতুন শাড়ি, শার্ট, পঞ্জাবি। খাওয়ার আনন্দে একটু অসাবধান হয়ে গায়ে পড়ে গেল খিচুড়ি। নতুন পোশাকে হলুদের বিচ্ছিরি দাগ নিয়ে মন খারাপ করে বাড়ি ফিরতে হবে। তারপর সারা পুজোয় খুঁতখুঁত করবে মনটা। এমনটা হতেই পারে। পোশাকে যাতে খাবারের দাগ না পড়ে তার জন্য সাবধান থাকতে হবে। তবে যদি নিতান্তই দাগ পড়ে যায় তাহলে জেনে নিন কী করবেন।

খাবার পড়লে অনেকেই সঙ্গে সঙ্গে একটু জল দিয়ে নেন। ভাবেন খাবারের দাগ বসে গেলে পরে ধুলেও উঠবে না। কিন্তু খাবারে যদি হলুদ বা তেলের দাগ লাগে তাহলে কিন্তু জল দিয়ে ধুয়ে কোনও লাভ নেই। কারণ হলুদ বা তেল জলে দ্রবীভূত হয় না। এই ধরনের দাগ লাগলে জল দিয়ে না ধুয়ে দাগের ওপর বেবি পাউডার ছিটিয়ে দিন। ঘষবেন না। বেবি পাউডার আস্তে আস্তে তেল শুষে নেবে। পুরো শুকিয়ে গেলে ঝেরে নিন। পাউডার ঝরে যাবে। দাগ হবে না।

How To Remove Stain From Clothes This Durga Puja-Ananda Utsav

যদি পোশাকে চা, কফি বা সস পড়ে যায় তাহলেও জল দিয়ে ধুয়ে কোনও লাভ নেই। সে ক্ষেত্রে তুলোর বলে সাদা ভিনিগার লাগিয়ে নিন। এই তুলো দাগের ওপর ঘষে নিন। পাঁচ-ছয় ঘণ্টা এ ভাবে রেখে দিন। তারপর ঠান্ডা জলে ধুয়ে নিন। জল উঠে যাবে।

যদি খুব মসৃণ সিল্ক বা জর্জেটের কাপড় হয় তাহলে ভিনিগারের সঙ্গে জল মিশিয়ে পাতলা করে লাগান। হলুদের দাগও ভিনিগার দিয়ে তুলতে পারেন।

যদি  এ ভাবেই দাগ উঠে যায় তাহলে শুধু ঠান্ডা জলেই ধুলেই হয়ে যাবে। যদি দাগ পুরোপুরি না ওঠে তাহলে ডিটারজেন্ট বা বার সাবান দিয়ে ঘষে কাচতে যাবেন না। এতে কাপড় নষ্ট হয়ে যেতে পারে। লিক্যুইড ডিটারজেন্ট শুধু দাগের ওপর লাগিয়ে হাত দিয়ে হালকা ঘষে ঠান্ডা জলে ধুয়ে নিন। এতে বাকি দাগ উঠে যাবে।

How To Remove Stain From Clothes This Durga Puja-Ananda Utsav

যদি বেশি দামী পোশাক বাড়িতে কাচতে না চান তাহলে ড্রাই ক্লিনিং করিয়ে নিন। কিন্তু এ ক্ষেত্রেও ড্রাই ক্লিনিংয়ে দেবেন বলে পোশাক ফেলে রাখবেন না। বেবি পাউডার বা ভিনিগার দিয়ে প্রাথমিক পরিষ্কারটা করে রাখুন। তারপর যত তাড়াতাড়ি সম্ভব ড্রাই ক্লিনিংয়ে দিন।

ড্রাই ক্লিনিংই করান বা বাড়িতেই ধুয়ে নিন, দাগ লেগে গেলে কিন্তু পোশাক বাড়ি ফিরে সঙ্গে সঙ্গে প্রাথমিক পরিষ্কার করে নিন। পুজোর আনন্দে পরে দাগ তুলবেন বলে ফেলে রাখবেন না। এতে পোশাক খারাপ হয়ে যেতে পারে। 

সর্বশেষ সংবাদ

ভিড়ের মধ্যে ঘুরে ঘুরে ঠাকুর দেখতে ভাল লাগে না। তার থেকে অনেক ভাল লাগে আড্ডা।
আমাদের ছোটবেলাটা ছিল সব পেয়েছিল দেশ। তখন যা চাইতাম তাই পেতাম।
ভাইকে এ বছর ভাইফোঁটাতে কী দেবেন ভেবেছেন? চলুন দেখি কিছু উপহারের নমুনা।
থাকছে অসংখ্য সিসি ক্যামেরার নজরদারি।
আজ কালীপুজো। দীপাবলির আলোয় সেজেছে চারিদিক।
শুধু কালীঘাট কিংবা দক্ষিণেশ্বর নয়। এ শহরে ছড়িয়ে রয়েছে ছোট বড় অসংখ্য কালীমন্দির।
বাজি পোড়ানোর সময় কিছু সাবধানতা নিতে বললেন চক্ষুরোগ বিশেষজ্ঞ ডা নন্দিনী রায় ও চেষ্ট ফিজিশিয়ান ডা সুস্মিতা রায়চৌধুরি।
মোমপ্রদীপ ও ফ্যান্সি প্রদীপের চাহিদা