উত্সবে বাড়িও হয়ে উঠুক আলো ঝলমলে

মধুবন্তী রক্ষিত
১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৭, ০৯:২৫:০০ | শেষ আপডেট: ০৪ অক্টোবর, ২০১৭, ১০:০৩:০০
দুর্গাপুজো মানেই আলো ঝলমলে একটা ব্যাপার। শুধু রাস্তাঘাটই আলোয় সেজে উঠবে কেন? নিজের বাড়িও সাজিয়ে তুলতে পারেন আলোর খেলায়।
ছবি: অনির্বাণ সাহা

বাহারি ল্যাম্প শেড

গৃহসজ্জার এক অনন্য উপকরণ হতে পারে ল্যাম্প শেড। শহরের যে কোনও লাইফস্টাইল সামগ্রীর দোকানেই পাওয়া যায় বিভিন্ন স্টাইলের ল্যাম্প শেড। রকমারি ডিজাইন, রং, সাইজ দেখে পছন্দ করে নিতে পারেন নিজের বাজেট অনুযায়ী। যদি ঘরে একটু ট্রাডিশনাল লুক চান তা হলে বেছে নিতে পারেন হ্যান্ডমেড পেপারের উপর মধুবনী পেন্টিং বা কলমকারি প্রিন্টের ল্যাম্প শেড। টেবল ল্যাম্প শেড নেবেন না স্ট্যান্ড ল্যাম্প শেড সেটা নির্ভর করবে আপনার ঘরের উপর।

স্পটলাইটিং

পুজোর আগে ঘরের ভোল পাল্টানোর জন্য স্পটলাইটিং এক অনবদ্য উপায়। আজকাল অনেকের বাড়িতেই থাকে ডিজাইনার অ্যাক্সেন্ট ওয়াল। এই ধরনের দেওয়াল সজ্জা হাইলাইট করার জন্য স্পটলাইট জাতীয় আলো খুবই ভাল। যে কোনও ভাল লাইটস অ্যান্ড ফিটিংস-এর দোকানে পেয়ে যাবেন স্পটলাইটিংয়ের বিশাল পসরা।

ডিজাইনার দেওয়াল না থাকলেও ক্ষতি নেই। প্রিয় কোনও পেন্টিং, অথবা প্রিয় কোনও ছবি ফ্রেম করে বসার ঘরে ঝুলিয়ে দিন। তার উপরে থাক স্পটলাইট বাল্ব।

Light Your Home This Durga Puja- Ananda Utsav 2017

হলুদ আলোর টিউবলাইট

একঘেয়ে সাদা আলোর টিউবলাইট ছেড়ে এই পুজোয় বেছে নিতে পারেন হলুদ আলোর টিউবলাইট। সব ঘরে না হলেও বসার ঘরে এই ধরনের হলুদ টিউবলাইট কিন্তু বেশ ভাল লাগে। হলুদ মিঠে আলোয় ভালই জমে উঠবে ভালই জমে উঠবে পুজোর আড্ডা। হলুদ আলো ঘরে এনে দেবে আভিজাত্যের ছোঁয়া। যে কোনও ইলেকট্রিশিয়ানের কাছেই পেয়ে যাবেন হলুদ আলোর টিউবলাইট। দামও খুব একটা বেশি হয় না। সিএফএল জাতীয় কম বিদ্যুত্ খরচ করা টিউবলাইটও পেয়ে যাবেন হলুদ।

টুনি বাল্বের ছড়া 

ঘর সাজানোর চটজলদি উপায় চাইলে টুনি বাল্ব বা এলইডি আলোর ছড়া এক কথায় অনবদ্য। নিমেষে যে কোনও ঘরের চেহারা বদলে দিতে পারে এই ধরনের আলো। দোকানে হরেক ডিজাইনের, রঙের টুনি বাল্ব পাওয়া যায়। পছন্দ, বাজেট অনুযায়ী বেছে নিন।

Light Your Home This Durga Puja- Ananda Utsav 2017

হিডেন লাইটিং

ঘর সাজানোর আরেক অভিনব উপায় হল হিডেন লাইটিং। বইয়ের তাকের পিছনে বা টেবলের নীচে লাগিয়ে নিন এলইডি আলোর স্ট্রিপ।

কোথায় পাবেন আলোর সাজ

যে কোনও লাইটিং এবং হার্ডওয়্যারের দোকানে পেয়ে যাবেন নানা রকমের ডিজাইন। তা ছাড়াও গিফট শপের দোকানগুলোতেও পাবেন বাহারি ল্যাম্প শেডের পসরা। পুজোর আগে অনেক হস্তশিল্প মেলাও হয়ে থাকে। সেখানেও পেয়ে যেতে পারেন পছন্দসই আলোর সাজ। এ ছাড়া অনলাইন পোর্টাল তো রয়েছেই। দোকানে গিয়ে কেনার সময় না থাকলে ঘরে বা অফিসে বসেই অর্ডার করে দিন। 

সর্বশেষ সংবাদ

দীপাবলি মানে অন্ধকার থেকে আলোয় ফেরা। ফুল, প্রদীপ, রঙ্গোলির রঙে মনকে রাঙিয়ে তোলা।
হেডফোন বা হেডসেট এমন বাছুন যা কি না আপনার কান আর শরীরকে কষ্ট না দেয়।
ছবি তোলার প্রথম ক্যামেরা কোডাক যে দিন বাজারে এল বিক্রির জন্য, সেই ১৮৮৮ সালে। পাল্টে গেল ছবি তোলার সংজ্ঞাই।
আগে এই প্রথা মূলত অবাঙালিদের মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকলেও এখন লক্ষ্মীলাভের আশায় বাঙালিরাও সমান ভাবে অংশগ্রহণ করেন।
ধন কথার অর্থ সম্পদ, তেরাসের অর্থ ত্রয়োদশী তিথি।
এই একবিংশ শতাব্দীতে ১৫৯০-এর একটুকরো আওধকে কলকাতায় হাজির করেছেন ভোজনবিলাসী শিলাদিত্য চৌধুরী।
আমেরিকার সেন্ট লুইসের প্রায় ৪০০ বাঙালিকে নিয়ে আমরা গত সপ্তাহান্তে মেতে উঠেছিলাম দূর্গা পুজো নিয়ে।
শারদীয়ার রেশ কাটতে না কাটতেই আগমনীর বার্তা নিয়ে হাজির দীপান্বিতা।