নোকিয়া হাতে পুজো দেখুন

রত্নাঙ্ক ভট্টাচার্য
০৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৭, ১৪:৪৯:৩৪ | শেষ আপডেট: ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৭, ১৯:১১:৪৬
অনেক দিন পরে সে‌ই পুরনো ব্র্যান্ড। দেখে নিন এই ফোনে কী কী আছে। লিখছেন রত্নাঙ্ক ভট্টাচার্য।
ছবি: সংগৃহীত।

আবার সে এসেছে ফিরিয়া। আর একে বারে পুজোর মুখে।

সে বলতে নোকিয়া। এক সময়ে দুনিয়া কাঁপানো মোবাইলের এই ব্র্যান্ডটি আবার বাজারে এসেছে। গত ২২ অগস্ট থেকে অ্যামাজনে নোকিয়া ৬-এর বিক্রি শুরু হয়েছে

এক সময়ে প্রায় হাতে হাতে ঘুরত ফিনল্যান্ডের সংস্থা নোকিয়ার তৈরি মোবাইল। কিন্তু স্মার্টফোনের বাজারে প্রতিযোগিতায় টিকে থাকতে পারেনি নোকিয়া। অ্যাপল, স্যামসুঙের কাছে হেরে বিদায় নিতে হয় নোকিয়াকে। নোকিয়াকে কিনে নেয় মাইক্রোসফটলুমিয়া নাম দিয়ে ওই ব্র্যান্ডের ফোন বিক্রি করতে থাকে। উইন্ডোজ অপারেটিং সিস্টেমে চলা সেই ফোনও বিশেষ জনপ্রিয় হয়নি। এর পরে স্মার্টফোনের দৌ়ড় থেকে সরে দাঁড়িয়েছে মাইক্রোসফট।

Nokia Making Comeback This Durga Puja-Ananda Utsav 2017

বেশ কিছু দিন পরে আবার বাজারে এসেছে নোকিয়ার ফোন। এইচএমডি গ্লোবাল নামের একটি সংস্থা এখন নোকিয়া ব্র্যান্ডটির মালিক। এক সময়ের অত্যন্ত জনপ্রিয় নোকিয়ার মোবাইল ৩৩১০-কে নতুন রূপে বাজারে নিয়ে আসা দিয়ে নব প্রজন্মের নোকিয়ার যাত্রা শুরু হয়েছে। বাজারে আসছে নোকিয়ার তিনটি মোবাইল। সবগুলিই অ্যানড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেমে চলা নোকিয়া-৬ ফোনটি কেনার জন্য প্রায় ১০ লক্ষ জন অ্যামাজনের ওয়েবসাইটে নাম লিখিয়েছেনএই ফোনের ডিসপ্লে কর্নিং গোরিলা গ্লাসের ৫.৫ ইঞ্চির। রেজলিউশন ১০৮০x১৯২০।

ফোনটির মূল চালিকাশক্তি ১.৪ গিগাহার্জের অক্টাকোর প্রসেসর। রয়েছে স্ন্যাপড্রাগন ৪৩০ এসওসি এবং তিন জিবি র‌্যাম। এমনিতে ৩২ জিবি রম থাকলেও প্রয়োজনে এসি কার্ডের সাহায্যে ১২৮ জিবি পর্যন্ত বাড়িয়ে নেওয়া যায়। পিছনের ক্যামেরা ১৬ মেগাপিক্সেলের আর সামনের ক্যামেরা আট মেগাপিক্সেলের।

এতে অ্যানড্রয়েড-৭ সংস্করণ রয়েছে। তবে এর ব্যাটারির ক্ষমতা তিন হাজার মিলি অ্যাম্পিয়ার আওয়ার। কাছাকাছি দামের জিওমি নোট ৪-এর থেকে প্রায় হাজার মিলি অ্যাম্পিয়ার আওয়ারের মতো কম। ফলে নোকিয়া কঠিন পরীক্ষার সামনে পড়তে চলেছে এ নিয়ে কোনও সন্দেহ নেই। এর দাম পড়বে ১২,৪৯৯ টাকা।

সর্বশেষ সংবাদ

দীপাবলি মানে অন্ধকার থেকে আলোয় ফেরা। ফুল, প্রদীপ, রঙ্গোলির রঙে মনকে রাঙিয়ে তোলা।
হেডফোন বা হেডসেট এমন বাছুন যা কি না আপনার কান আর শরীরকে কষ্ট না দেয়।
ছবি তোলার প্রথম ক্যামেরা কোডাক যে দিন বাজারে এল বিক্রির জন্য, সেই ১৮৮৮ সালে। পাল্টে গেল ছবি তোলার সংজ্ঞাই।
আগে এই প্রথা মূলত অবাঙালিদের মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকলেও এখন লক্ষ্মীলাভের আশায় বাঙালিরাও সমান ভাবে অংশগ্রহণ করেন।
ধন কথার অর্থ সম্পদ, তেরাসের অর্থ ত্রয়োদশী তিথি।
এই একবিংশ শতাব্দীতে ১৫৯০-এর একটুকরো আওধকে কলকাতায় হাজির করেছেন ভোজনবিলাসী শিলাদিত্য চৌধুরী।
আমেরিকার সেন্ট লুইসের প্রায় ৪০০ বাঙালিকে নিয়ে আমরা গত সপ্তাহান্তে মেতে উঠেছিলাম দূর্গা পুজো নিয়ে।
শারদীয়ার রেশ কাটতে না কাটতেই আগমনীর বার্তা নিয়ে হাজির দীপান্বিতা।