সুস্থ থাকার পথ দেখায় এমন কিছু যন্ত্র

স্বপন দাস
২০ অগস্ট, ২০১৭, ২০:২৭:৩৪ | শেষ আপডেট: ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৭, ১৯:১১:৪৬
এই যন্ত্রগুলি আমাদের শহরেই পাবেন। একটু বড় খেলাধুলার সরঞ্জামের দোকান বা সুস্থ থাকার শারীরিক কসরতের সরঞ্জামের জন্য যে সব বিপনি আছে, সেখানেই পাওয়া যাবে।

কথায় বলে, ‘শরীরের নাম মহাশয়, যা সওয়াবে তাই সয়’। কিন্তু আজকের কর্মব্যস্ত দিনে, আমাদের শরীরকে নিয়ে ভাববার সময় কই ? নানা উপসর্গে জেরবার হয়ে যখন চিকিৎসকের কাছে যাই, তখন তিনি অধিকাংশ ক্ষেত্রে একটি শব্দ যেন ঠোঁটের ডগায় বসিয়েই রেখেছেন- “এত দিন ধরে রোগটা পুষছিলেন। একটু আগে আসতে পারেননি!” সত্যিই তো, একটু আগে এলে যে ভাল হত, সেটা তো পাগলেও বোঝে। কিন্তু কী আর করা যাবে, সেই ব্যস্ততা।

এই ব্যস্ততার জন্যই আজকের দিনে অনেক মানুষ প্রতিকারের অন্য চিন্তা ভাবনা করছেন। আর সেই চিন্তা ভাবনার ফসল হল- আমরা বাড়িতে বসেই, নানা রোগের প্রাথমিক উপসর্গের পরীক্ষা–নিরীক্ষা যেমন করতে পারি, তেমনই চিকিৎসকদের বলে দেওয়া শারীরিক পরিশ্রমটা সঠিক ভাবে পালন করতে পারছি কি না, তাও বুঝে নিতে পারি নানা ছোট ছোট যন্ত্রের মাধ্যমে।

এই যন্ত্রগুলি আমাদের শহরেই পাবেন। একটু বড় খেলাধুলার সরঞ্জামের দোকান বা সুস্থ থাকার শারীরিক কসরতের সরঞ্জামের জন্য যে সব বিপনি আছে, সেখানেই পাওয়া যাবে।আর হাতের মুঠোয় অন লাইন অর্ডার করার ব্যবস্থা তো রয়েইছে।

এবার দেখা যাক পুজোর আগে নিজেকে সুস্থ রাখার চাবিকাঠি কোন কোন যন্ত্রের মধ্যে লুকিয়ে রয়েছে।

Some Gadgets we need to maintain our Health-Ananda Utsav 2017

কোয়ার্ডিও  বেস স্মার্ট স্কেল

আমরা কেউ একটু ভারী চেহারার অধিকারি, কেউ বা কম। সবাই চাই স্লিম একটা চেহারা। সেই চেহারার মাপকাঠি কী হবে,তা আমাদের চিকিৎসক বলে দেন। আমরাও তাঁর নির্দেশ মত চলি। এই কোয়ারডিও বেস স্মার্ট স্কেল শুধু শরীরের ওজন নয়, আমাদের চেহারার সঙ্গে সঙ্গতিপূর্ণ শরীরের নানা জরুরি তথ্য, যেমন শরীরের ওজন কত, হার্ট রেট কী রকম, শরীরে ফ্যাট কতটা, শরীরে জলের শতাংশের হিসাব, এমনকি শরীরের নানা পেশীর খোঁজ খবর দিতে পারে। হ্যাঁ, আপনার হাতের স্মার্ট অ্যানড্রয়েড ফোনে নেওয়া কিছু অ্যাপ মারফত। এটি খুব সহজে বাড়িতে বসেই পাবেন অন লাইনে অর্ডার করে। দাম সাধ্যের মধ্যেই, ৮হাজার টাকার মতো।

Some Gadgets we need to maintain our Health-Ananda Utsav 2017

স্মার্ট স্কার্ফ

পরিবেশ জুড়ে বিষাক্ত বাতাসের ছড়াছড়ি। আমাদের ফুসফুসটাকে কুরেকুরে খেয়ে কখন যে শেষ করে দেয় বুঝতেই পারি না। এর থেকে বাঁচার রাস্তা কিছুটা হলেও বের করে ফেলেছেন গবেষকরা। একটি ফরাসি সংস্থার হাত ধরে বাজারে আসছে স্মার্ট স্কার্ফ। বিশ্বের প্রথম এই অ্যান্টি পলিউশন স্কার্ফ তৈরি করেছে ক্লসেট সি সি নামের একটি সংস্থা। এই স্কার্ফ-এ মেশানো হচ্ছে আমাদের চিরাচরিত টেক্সটাইল এর সঙ্গে আধুনিক কারিগরির। এই স্মার্ট স্কার্ফ এর নাম দেওয়া হয়েছে ‘ওয়্যার’ (wair )। এই স্কার্ফ-এর বিশেষত্ব হল, এটি সব রকমের দূষিত বায়ুকে আমাদের শরীরে ঢুকতে বাধা দেয়। নির্মাতারা জানাচ্ছেন, আমাদের দেশে শীতকালে খুব কাজে দেবে এই স্কার্ফ, কেন না এই সময়ে বায়ুতে দূষণের মাত্রা একটু বেশি পরিমাণে থাকে। আর যাঁরা সাইক্লিং করেন, তাদের পক্ষে এটি খুব উপকারী। এ বছরের অক্টোবরে খোলা বাজারে আনবেন নির্মাতারা।

Some Gadgets we need to maintain our Health-Ananda Utsav 2017

ফাস্টট্রাক রিফ্লেক্স অ্যাক্টিভিটি  ট্র্যাকার

সম্প্রতি বাজারে এসেছে ফাস্টট্র্যাক রিফ্লেক্স অ্যাক্টিভিটি ট্র্যাকার নামের একটি সুন্দর ঘড়ি। আর এসেই জনপ্রিয় যুব সম্প্রদায়ের কাছে। দাম ২ হাজার টাকার মধ্যেই। পাওয়া যায় টাইটানের সব শোরুমে। কী আছে এই রিস্ট ব্যান্ডের মত ঘড়িতে? আমাদের যে কোনও কায়িক পরিশ্রমে ক্যালরি বার্ন কত হল, তার সঙ্গে কত ক্ষণ ঘুমোচ্ছি সেই  হিসাব যেমন রাখে, তেমনই আমাদের স্মার্ট ফোনটির সঙ্গে সংযোগ রেখে প্রয়োজনীয় সময়ে অ্যালার্ম দিয়ে মনে করিয়ে দেয়, কখন কোন কাজটি করতে হবে। আমাদের মর্নিং ওয়াকে কতটা হাঁটলাম, তাও বলে দিতে পারে এই ঘড়ি। 

Some Gadgets we need to maintain our Health-Ananda Utsav 2017

ব্রেন সেন্সিং হেডব্যান্ড ‘মিউস ’

অবসাদ আজকের দিনে আমাদের চুপি চুপি শেষ করে দিচ্ছে। এর থেকে রেহাই পাওয়ার বড় উপায় মেডিটেশন। ধরুন আপনি মেডিটেশনে আছেন।আর আপনার মাথায় লাগানো আছে একটি হেড ব্যান্ড। হেডব্যান্ডটি  মেডিটেশনের সময়ে আপনার ব্রেনের ভিতর কী কাজ হচ্ছে, সেটি দেখে চলেছে নিঃশব্দে। আর একটি অ্যাপ-এর মাধ্যমে  সেটি আপনাকে জানিয়ে দেবে আপনার স্মার্ট ফোন, ট্যাব, ডেক্সটপ, ল্যাপটপ  মারফত। আপনার অবসাদ কাটানোর ক্ষেত্রে কোন  সময়ের মেডিটেশন কতটা কাজে আসছে, তাও আপনি জানতে পারছেন। আর সেই মতো ব্যবস্থা নিয়ে অবসাদের থেকে মুক্তির পথ আপনি নিজেই বের করছেন। একটি নির্দিষ্ট রুটিনে নিজেকে সাজিয়ে নিতে পারছেন আপনি।

সর্বশেষ সংবাদ

দীপাবলি মানে অন্ধকার থেকে আলোয় ফেরা। ফুল, প্রদীপ, রঙ্গোলির রঙে মনকে রাঙিয়ে তোলা।
হেডফোন বা হেডসেট এমন বাছুন যা কি না আপনার কান আর শরীরকে কষ্ট না দেয়।
ছবি তোলার প্রথম ক্যামেরা কোডাক যে দিন বাজারে এল বিক্রির জন্য, সেই ১৮৮৮ সালে। পাল্টে গেল ছবি তোলার সংজ্ঞাই।
আগে এই প্রথা মূলত অবাঙালিদের মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকলেও এখন লক্ষ্মীলাভের আশায় বাঙালিরাও সমান ভাবে অংশগ্রহণ করেন।
ধন কথার অর্থ সম্পদ, তেরাসের অর্থ ত্রয়োদশী তিথি।
এই একবিংশ শতাব্দীতে ১৫৯০-এর একটুকরো আওধকে কলকাতায় হাজির করেছেন ভোজনবিলাসী শিলাদিত্য চৌধুরী।
আমেরিকার সেন্ট লুইসের প্রায় ৪০০ বাঙালিকে নিয়ে আমরা গত সপ্তাহান্তে মেতে উঠেছিলাম দূর্গা পুজো নিয়ে।
শারদীয়ার রেশ কাটতে না কাটতেই আগমনীর বার্তা নিয়ে হাজির দীপান্বিতা।