বাহুবলীর ক্ষমতা নিয়ে বি এম ডব্লিউ আর ১৮  

জয়দীপ সুর

৩০ অক্টোবর, ২০২০, ১২:৪৭
শেষ আপডেট: ৩০ অক্টোবর, ২০২০, ১৪:০৫

বি এম ডব্লিউ আর ১৮ বাইকটির মধ্যে এই প্রস্তুতকারকের অন্য সব মডেলে থাকা গুণাগুণ রয়েছে, সঙ্গে আছে তিন বছরের ওয়ারেন্টি।


নিজেদের ঐতিহ্যের সাথে সামঞ্জস্য রেখে বি এম ডব্লিউ নিয়ে এল তাদের নুতন বাইক ‘বি এম ডব্লিউ আর ১৮’ (BMW R 18) । বি এম ডব্লিউ-র প্রায় একশো বছরের যে দীর্ঘ ইতিহাস, তাতেও নিজগুণে ঢুকে পড়েছে এই মোটরবাইকটি । বি এম ডব্লিউ আর ১৮ বাইকটির মধ্যে এই প্রস্তুতকারকের অন্য সব মডেলে থাকা গুণাগুণ তো আছেই, সঙ্গে আছে তিন বছরের ওয়ারেন্টি। এই সময়কালে আপনি হাতের নাগালে থাকা সার্ভিস সেন্টারের পরিষেবা পাবেন একেবারে নিখরচায়। সেইসঙ্গেই বাড়তি সুবিধা- কত কিলোমিটার বাইকটি চলেছে, তার কোনও ঊর্ধ্বসীমা নেই।

সকলেই জানেন যে, বি এম ডব্লিউ আর সব বাইকের থেকে কীকারণে আলাদা। তবুও বলা দরকার, এর আভিজাত্যের কথা। এই আর ১৮ বাইকটির সঙ্গে সামনা সামনি দেখা হলে তার আভিজাত্যের সৌন্দর্যে যেমন আপনি মুগ্ধ হবেন, তেমনই নজর কাড়বে এর হেডলাইট , ডায়নামিক রাইডিং লাইট, সিট আর ব্ল্যাক স্ট্রম মেটালিক গায়ের রঙে।

আরও পড়ুন:  নতুন প্রজন্মের মনের মতো টিভিএস এনটর্ক ১২৫ রেস এডিশন স্কুটা

এ বার একটু এর বাহুবলী ক্ষমতার দিকে তাকানো যাক। এয়ার ও অয়েল কুলড দুই সিলিন্ডার বক্সার ইঞ্জিন। মোটরবাইকের শক্তির পরিচয় দেবে টু সিলিন্ডার ইঞ্জিন, আর ইঞ্জিনের ১৮০২ সিসি বলে দেবে এটি কতটা অশ্বশক্তিতে দৌড়বে। প্রস্তুতকারকরা অবশ্য একটি মাপকাঠি বলে দিয়েছেন- ৯১ হর্স পাওয়ার।

বি এম ডব্লিউ আর ১৮-এ রয়েছে এয়ার ও অয়েল কুলড দুই সিলিন্ডার বক্সার ইঞ্জিন।

আসা যাক একটু অন্য প্রসঙ্গে। সিঙ্গল ডিস্ক ড্রাই ক্লাচ প্রযুক্তি এই প্রথম কোনও বাইকে দেওয়া হয়েছে । ৬ স্পিড ট্রান্সমিশন, সঙ্গে আছে রিভার্স গিয়ার। ফলে চালকের অনুভুতি হবে প্রাপ্তির প্রশান্তিতে। এই বাইকের ব্রেকের প্রযুক্তির কথা না হয় নাই বা বললাম। সেটি শোরুমে গিয়ে হাতেকলমে যাচাই করে নেবেন। একেবারে নতুন প্রজন্মের মনের মতো করেই এটি তৈরি করেছেন প্রস্তুতকারকরা।

আরও পড়ুন: পরিশুদ্ধ বায়ু থেকে যাবতীয় নিরাপত্তার প্রতিশ্রুতি, আসছে এম জি গ্লস্টার প্রিমিয়াম এসইউভি

এখন বি এম ডব্লিউ আর ১৮ -এর দাম ১৮,৯০,০০০ টাকা। এবং বি এম ডব্লিউ আর ১৮ প্রথম সংস্করণের দাম পড়বে ২১,৯০,০০০ টাকা।