বিএমডব্লিউ-র এই স্পোর্টস মডেলেই মাতছেন গাড়িপ্রেমীরা

জয়দীপ সুর

১০ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১৪:৫০
শেষ আপডেট: ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১২:৩৪

ভারতে চলে এল বিএমডব্লিউ এক্স ফাইভ।এক্স ফাইভের তিন রকম ডিজাইন ,বিএমডব্লিউ— স্পোর্টস, এক্সলাইন এবং এম স্পোর্ট।


ভারতে চলে এল বিএমডব্লিউ এক্স ফাইভ। মুম্বইতে কিংবদন্তি ক্রিকেটার ও গাড়িপ্রেমী সচিন তেন্ডুলকরের হাতে উদ্বোধন হল এই গাড়ির। ইতিমধ্যেই এক্স ফাইভের ডিজেল ভ্যারাইটি বাজারে এসে গিয়েছে। এই বছরের শেষের দিকে চলে আসবে পেট্রল গাড়িও।

এক্স ফাইভের তিন রকম ডিজাইন নিয়ে বিএমডব্লিউ— স্পোর্টস, এক্সলাইন এবং এম স্পোর্ট। এক্সলাইনে থাকছে শক্তিশালী অফ-রোড লুক, স্পোর্টসে থাকছে স্পোর্টি লুক। এম স্পোর্টকে দেখলেই বোঝা যায় এটি একটি স্পোর্টস মডেল। বিএমডব্লিউ এক্স ফাইভের দুই ধরনের ডিজেল মডেল— একটি বিএমডব্লিউ এক্স ফাইভ এক্স ড্রাইভ ৩০ ডি স্পোর্ট এবং অন্যটি বিএমডব্লিউ এক্স ফাইভ এক্স ড্রাইভ ৩০ ডি এক্সলাইন। পেট্রলের যে মডেলটি আসতে চলেছে তার নাম বিএমডব্লিউ এক্স ফাইভ এক্স ড্রাইভ ৪০ আই স্পোর্ট।

এই তিনটি মডেলেরই দাম জানিয়েছে বিএমডব্লিউ। এক্স ফাইভ এক্স ড্রাইভ ৩০ ডি স্পোর্ট-এর দাম ৭২ লক্ষ ৯০ হাজার টাকা, এক্স ফাইভ এক্স ড্রাইভ ৩০ ডি এক্সলাইন-এর দাম ৮২ লক্ষ ৪০ হাজার এবং বিএমডব্লিউ এক্স ফাইভ এক্স ড্রাইভ ৪০ আই স্পোর্ট-এর দাম ৮২ লক্ষ ৪০ হাজার টাকা।

আরও পড়ুন: এক মাসেই বুকিং ১০ হাজার! সস্তার এই এসইউভি-র খুঁটিনাটি

গাড়ির বাজারে এল বিএমডব্লিউ এক্স ফাইভ

গাড়ি মানে শুধুই তো নিজের ইচ্ছে মতো ঘুরে বেড়ানোর সুবিধে নয়, এটা এখন একটা স্টাইল স্টেটমেন্ট। আর তার জন্য গাড়ি কেমন দেখতে হচ্ছে সেই দিকেও যথেষ্ট নজর দেয় গাড়ি প্রস্তুতকারি সংস্থাগুলি। গাড়ির রঙের দিকেও নজর রেখেছে বিএমডব্লিউ। এই মডেলে তারা রাখছে মিনারেল হোয়াইট, ফিটোনিক ব্লু এবং ব্ল্যাক স্যাফায়ার রঙে।

সংস্থার দাবি, তাদের টুইন পাওয়ার টার্বো প্রযুক্তি ইঞ্জিনের সর্বোচ্চ ক্ষমতা বের করে আনতে পারে। এই সুবিধা থাকছে পেট্রল এবং ডিজেল দুই ভ্যারাইটিতেই। এক্স ফাইভ এক্স ড্রাইভ ৩০ ডি থাকছে থ্রি লিটার সিক্স সিলিন্ডার ইঞ্জিন, সর্বোচ্চ টর্ক ৬২০ এনএম। অ্যাক্সিলারেটর থাকছে ০-১০০ কিমি প্রতি ঘণ্টা ৫.৫ সেকেন্ডে।

আরও পড়ুন: কথা শোনে, ইশারাও বোঝে! বিএমডব্লিউ আনল এমন গাড়ি

এ ছাড়াও থাকবে অল হুইল ড্রাইভ সিস্টেম। ইলেক্ট্রনিক পাওয়ার স্টিয়ারিং, ব্রেক-এনারজি রিজেনারেশন। থাকবে ইলেক্ট্রনিক ভেহিকেল ইমোবিলাইজার এবং ক্র্যাস সেন্সর সিস্টেম।