নতুন হন্ডা হর্নেট- ২.০ যেন সিংহের সওয়ারি!

জয়দীপ সুর

১১ অক্টোবর, ২০২০, ১৪:৩০
শেষ আপডেট: ১৭ অক্টোবর, ২০২০, ১৮:৪০

২০০ সিসি’ এই মোটরবাইকের সামনের চাকা ১১০ এম এম, পিছনের চাকা ১৪০ এম এম।


আজকের তরুণ প্রজন্মের স্বপ্ন পুরণ করতে পারে তাদের নতুন অত্যাধুনিক প্রযুক্তির মোটরবাইক। এমনটাই দাবি হন্ডা মোটর সাইকেল অ্যান্ড স্কুটার ইন্ডিয়া প্রাইভেট লিমিটেডের ম্যানেজিং ডিরেক্টর ওগাতার।

নতুন ‘হর্নেট -২.০’ বাজারে আনার মুহূর্তে এমন উক্তির কারণও আছে। নতুন প্রজন্ম একটি মোটরবাইকে ঠিক যা যা চায়, প্রায় তার সবগুলিই আছে এতে। এর ইঞ্জিন (বিএস ফোর ) তার প্রাণশক্তি। কলেবরে সিংহের মতো, রাস্তায় তার চলাও হবে সিংহের মতোই রাজকীয়। চালক যেন পাবেন সিংহের সওয়ারি হওয়ার অনুভূতি- বলছে সংস্থা।

এই মোটরসাইকেলে আছে এমন ব্রেক, যা নিমেষে কাজ করে থামিয়ে দিতে পারে গতিকে। ফলে যাঁরা চালাবেন, তাঁরা কতটা নিরাপদ, নিজেরাই বুঝবেন। বাইকটির ডিজিটাল ডিসপ্লে বোর্ডও অন্য সকলের চেয়ে একটু হলেও আলাদা। ফলে চালকের জন্যও সুবিধাজনক। আর জোরালো হেড লাইটের কথা বলাই বাহুল্য।

আরও পড়ুন: বিন্দাস গাড়ি চালানোর ইচ্ছেপূরণ, হাজির ফোর্ড অ্যান্ডেভার

২০০ সিসি’ এই মোটরবাইকের সামনের চাকা ১১০ এম এম, পিছনের চাকা ১৪০ এম এম। ফলে রাস্তাকে আঁকড়ে ধরে থাকার ক্ষমতা অনেক বেশি। আর গতি? সে তো চালকের হাতেই। বিশেষত যাঁরা মোটর রেসিং-এর মজা চেখে নিতে চান, তাঁদের এটি সেই মজাই দেবে।

মনের মতো চারটি রঙে আপনি পাবেন হন্ডা হর্নেট ২.০। দাম মোটামুটি ১ লক্ষ ২৭ হাজারের টাকার মতো ( এক্স শোরুম)। এই প্রথম কোন প্রস্তুতকারক সংস্থা ৬ বছরের ওয়ারেন্টি দিচ্ছে ( তিন বছর স্টান্ডার্ড ও ৩ বছর অপশনাল এক্সটেন্ডেড )। হন্ডা আরও জানিয়েছে যে, এর মোটরবাইকটির রক্ষণাবেক্ষণ খরচও প্রায় নেই বললেই চলে!

আরও পড়ুন: অনন্য অভিজ্ঞতা দিতে বাজারে আসছে বিলাসবহুল সুপারবাইক প্যানিগালে ভি২