নাড়ুর নস্ট্যালজিয়ায় ফেলে আসা লক্ষ্মীপুজোর গল্প বললেন সুদীপ্তা

নিজস্ব সংবাদদাতা

২২ অক্টোবর, ২০১৮, ১২:৩১
শেষ আপডেট: ২২ অক্টোবর, ২০১৮, ১২:৪৩

একটু ব্যতিক্রমী অভিনেত্রী সুদীপ্তা চক্রবর্তী। তাঁর বাড়িতে লক্ষ্মীপুজোর রেওয়াজ নেই।


দুর্গাপুজো শেষ। তার রেশ মিলিয়ে যেতে না যেতেই শুরু হয়ে যায় লক্ষ্মীপুজোর প্রস্তুতি। যে মণ্ডপে দুর্গাপুজো হয়, সেখানে লক্ষ্মীর আরাধনাও করেন উদ্যোক্তরা। তবে এ পুজোর চল প্রতি ঘরে।

এখানেই যেন একটু ব্যতিক্রমী অভিনেত্রী সুদীপ্তা চক্রবর্তী। না! তাঁর বাড়িতে লক্ষ্মীপুজোর রেওয়াজ নেই। ‘‘আমার মাকে কখনও লক্ষ্মীপুজো করতে দেখিনি। ইনফ্যাক্ট কোনও ঠাকুরের ছবিই আমাদের বাড়িতে ছিল না। ইদানীং মাকে তাও কখনও কখনও পুজো করতে দেখি। আর আমি বাড়িতে কয়েক বছর ধরে দিওয়ালির পুজো করি। লক্ষ্মীপুজো হয় না”— বললেন অভিনেত্রী।

লক্ষ্মীপুজো বাড়িতে হয় না, বটে। তবে ঘরোয়া এই উত্সবের মেজাজ ধরা আছে তাঁর মেয়েবেলার স্মৃতিতে। দল বেঁধে বাড়ি বাড়ি নাড়ু, নিমকি খাওয়ার স্মৃতিতে মিঠে হাত বোলালেন সুদীপ্তা।

আরও পড়ুন: লোখন্ডবালায় দশমীতে সিঁদুর খেলা, দেখুন ভিডিয়ো​

আরও পড়ুন: ‘মিটু’ বিতর্কের পর ফের প্রকাশ্যে তনুশ্রী, এ বার দুর্গাপুজোর মণ্ডপে​

‘‘লক্ষ্মীপুজোর সন্ধেবেলা আমরা বোনেরা, বন্ধুরা মিলে নাড়ুর সন্ধানে বেরতাম। বেশির ভাগ বন্ধুদের বাড়িতে পুজো হত। আমাদের বোনেদের বন্ধুদের গ্রুপও মোটামুটি একই ছিল। ফলে কার বাড়িতে বেটার নাড়ু পাওয়া যাবে, সেটার খোঁজ করতাম আমরা’’— শেয়ার করলেন ফেলে আসা লক্ষ্মী পুজোর গল্প।

Community guidelines
Community guidelines