সুতির নকশা ও সুতির কাপড়েই বাজিমাত!

সুদীপা দাশগুপ্ত

০৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১৪:৩১
শেষ আপডেট: ১০ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১৪:৪৩

পুজোর পোশাক বাছাইয়ের ক্ষেত্রে নিজস্ব কমফর্টের বিষয়টি সবার আগে মাথায় রাখুন। সুতির শাড়ি, ড্রেস, পাঞ্জাবি পড়েই আপনি আনতে পারেন পুজোর সাজে গ্ল্যামারাস টাচ


আমাদের এই গ্রীষ্মপ্রধান দেশে সুতির পোশাকের চাহিদা চিরকাল ধরেই চলে এসেছে। ব্যস্ত জীবনযাত্রায় দিনের বেশির ভাগ সময়টাই কাটে বাড়ির বাইরে। তাই গরমে আমাদের স্বাচ্ছন্দ্য এনে দিতে সুতির পোশাকের কোনও তুলনাই নেই। বাংলার সুতোর কদর করে সারা বিশ্ব। তবে এখন এই সুতির দাম আকাশ ছোঁয়া। তাই খাঁটি সুতি পকেটসই দামে ক্রেতার হাতে তুলে দেওয়া বিক্রেতাদের কাছে এখন একটা বড় চ্যালেঞ্জ!

 সারা বছর জিনস, টপ, ওয়ান পিস পড়লেও পুজোর ক’দিন দিশি পোশাকই থাকে আমাদের পছন্দের তালিকার শীর্ষে। পুজোতে সাজব অথচ আরামও পাব এমনটা চাইলে ভরসা রাখুন সুতির নকশা ও সুতির কাপড়েই। ‘সুতির শাড়ি, ড্রেস, পাঞ্জাবি পড়েই আপনি আনতে পারেন পুজোর সাজে গ্ল্যামারাস টাচ’— এমনটাই মনে করেন ‘কটনওয়ালা’-র কর্ণধার শর্মিলা বসু ঠাকুর। হ্যান্ডলুম শাড়ির সঙ্গে পরে ফেলুন একটা ক্রপ টপ কিংবা জিনসের সঙ্গে একটা শর্ট কটন পাঞ্জাবি— পুজোর প্যান্ডেলে আপনার এই পরিধান নজর কাড়বে সবার।

শর্মিলা বসু ঠাকুরের মতে, আপনার পুজোর সাজপোশাক যেন অবশ্যই ব্যক্তিত্বের সঙ্গে মানানসই হয়। ফ্যাশনেবল পোশাক পরিধানে আপনার বয়স কখনই বাধা হতে পারে না। তাই এই গরমে পুজোর পোশাক বাছাইয়ের ক্ষেত্রে নিজস্ব কমফর্টের বিষয়টি সবার আগে মাথায় রাখুন। দিনের বেলায় খুব বেশি মেক আপের প্রয়োজন নেই। রাতের সাজে দেখাতেই পারেন মেক আপে আপনার মুনশিয়ানা।

আরও পড়ুন: পুজোয় নতুন কোন ফেসিয়াল? আপনার ত্বকের জন্য কোনটা সেরা...

পুজোর কেনাকাটা নিশ্চই ইতিমধ্যেই শুরু করে ফেলেছেন। পুজোর কালেকশনের সুতির পোশাকের যাবতীয় সম্ভার পেতে একবার ঢুঁ মারতেই পারেন ‘কটনওয়ালা’-এ। খাদি বা হ্যান্ডলুমের হরেক রকম ড্রেস, স্কার্ট, ওড়না, শাড়ি এবং ছেলেদের স্মার্ট লুক পাঞ্জাবির ট্রেন্ডি ডিজাইনের হদিশ মিলবে এই ঠিকানায়।

ড্রেস: পুজোর সাজে অভিনবত্ব আনতে এই পুজোয় পড়ুন খাদি কাপড়ের লং কিংবা নি লেনথ ড্রেস। খাদির সঙ্গে থাকতেই পারে ইক্কতের টাচ। সকাল কিংবা রাতের সাজে এই ড্রেসেই হয়ে উঠুন অনন্যা! পোশাকে পকেটের বাড়বারন্ত এখন ফ্যাশনে ভীষণ ‘ইন’। অ্যাসেমেট্রিক হেমলাইন,প্যাচ ওয়ার্কের ছোঁয়া ও পকেট-যুক্ত ড্রেসেই তৈরি করুন আপনার নিজস্ব স্টাইল স্টেটনেমেন্ট। এ ছাড়া ড্রেসে মাল্টি লেয়ার্সের কাজও মনে ধরছে তরুণীদের। ১,৪০০ থেকে ২,৫০০ টাকার মধ্যেই পেয়ে যাবেন নজর কাড়া এই সমস্ত ড্রেস।

আরও পড়ুন: পুজোর ভিড়ে গরমে মেক আপ ঘাঁটার ভয়? এই জাদুতেই ধরে রাখুন সাজগোজ!

স্কার্ট: স্ট্রেট কাট কিংবা ঘের যুক্ত স্কার্ট থাকতেই পারে আপনার পছন্দের তালিকায়। স্কার্টের সঙ্গে স্লিভলেস টপ আর গলায় জড়িয়ে নিন একটা কটন স্কার্ফ- এতেই জমে যাবে আপনার সপ্তমীর সকালের সাজ। এই সব ডিজাইনার স্কার্টের দাম ১,২০০ টাকা থেকে শুরু ।

শাড়ি: এই পুজোয় পড়ুন হ্যান্ডলুম কিংবা খাদির শাড়ি। বেশ কয়েক বছর ধরেই এই হ্যান্ডলুম শাড়িতে মজেছে বাঙালি রমণীর মন। এখন এই শাড়িগুলিতেই ভেজিটেবিল ডাই প্রিন্ট, টাই অ্যান্ড ডাই-এর কাজ বেশ জনপ্রিয়। এ ছাড়া আজরাক প্রিন্টের কটন শাড়িও রাখতে পারেন আপনার বাকেট লিস্টে। এ ছাড়াও শাড়ির ফ্যাশনে থাকছে ভারতের বিভিন্ন প্রদেশের সুতোর নকশার টাচ। ১,৫০০ টাকা থেকে ৪,৫০০ টাকার মধ্যেই পেয়ে যাবেন খাঁটি  হ্যান্ডলুম ও খাদির এই এই সব শাড়ির সম্ভার।

ব্লাউজ:  সাধারণ শাড়ির সঙ্গে একটা সুন্দর ডিজাইনার ব্লাউজেই আপনি হয়ে উঠতে পারেন অনন্যা। এখন বোটনেক ব্লাউজের পাশাপাশি স্লিভলেস আর লেসের ব্লাউজ ফ্যাশনে ভীষণ ‘ইন’।  শাড়ি সঙ্গে পড়ে ফেলুন একটা কনট্রাস্ট ব্লাউজ-এতেই হবে আপনার সাজ সম্পূর্ণ।

ওড়না ও স্কার্ফ:  ড্রেস কিংবা স্কার্টের সঙ্গে একটা প্রিন্টেড স্কার্ফ বদলে দিতে পারে আপনার সম্পূর্ণ স্টাইল স্টেটমেন্ট। কুর্তির সঙ্গে নিয়ে নিন একটা জামদানি ওড়না। আপনার এই লুক সকলের মাঝে নজর কাড়বেই। এ ছাড়া ওড়নায় গুজরাতি নকশার সুতোর কাজও ইদানিং বেশ জনপ্রিয়। ১,৩০০ থেকে ২,৫০০ টাকার বাজেটেই পেয়ে যাবেন এই সমস্ত ওড়না ও স্কার্ফ।

পাঞ্জাবি: ছেলেদের ফ্যাশনেও থাকছে সুতির ছোঁয়া। পাঞ্জাবির হাতায় ও কলারে থাকছে সুতোর নকশার কাজ। খাদি কটনের পাঞ্জাবি পুজোর সাজে আপনাকে একটা এথনিক লুক। সঙ্গে অবশ্যই পাবেন স্বাচ্ছন্দ্য।  

পোশাক সৌজন্যে: কটনওয়ালা

মডেল: অমৃতা চট্টোপাধ্যায়, অমিত ঘোষদস্তিদার, সঞ্জনা, দিশা