পুজোর ভিড়ে গরমে মেক আপ ঘাঁটার ভয়? এই জাদুতেই ধরে রাখুন সাজগোজ!

নিজস্ব প্রতিবেদন

০৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১৮:১৫
শেষ আপডেট: ১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১৪:৫৭

মেক আপের সময় এই ভুলগুলি করে থাকেন অনেকেই । আসুন জেনে নিই কী কী সেই ভুল, যা বদলালেই মেক আপ টিকে থাকবে অনেক ক্ষণ।


পুজোয় সকাল থেকে রাত অবধি প্রিয় মানুষদের সঙ্গে ঠাকুর দেখার পরিকল্পনা রয়েছে? নতুন শাড়ি, গয়না ও মেক-আপে হয়ে উঠতে চান পুজোর অনন্যা? তা হলে কেবল ভাল সাজগোজের দিকে নজর দিলেই কিন্তু হবে না।  আপনাকে জানতে হবে দশ-বারো ঘণ্টার জন্য সেই মেক আপ ধরে রাখার ‘ম্যাজিক ট্রিকস’!

অনেকটা সময় খরচ করলেন মেক আপের জন্য অথচ সকালের সাজ দুপুর গড়াতেই ‘ঘেঁটে ঘ’! নামী সংস্থার দামি উপকরণ ব্যবহার করেও মিলছে না এই সমস্যার সমাধান। অযথা প্রোডাক্টগুলিকে গালমন্দ করে লাভ নেই, বরং মেক আপের সময় চারটি বিষয় মাথায় রাখলেই বিনা টাচ-আপেই  সারা দিন বজায় রাখতে পারবেন আপনার পুজোর সাজ।

মেক আপের সময় এই ভুলগুলি করে থাকেন অনেকেই । আসুন জেনে নিই কী কী সেই ভুল, যা বদলালেই মেক আপ টিকে থাকবে অনেক ক্ষণ।

আরও পড়ুন: পার্লারে আর নয়, এ সব উপায়ে চুলে হাইলাইট করুন নিজেই

মেক-আপের সঠিক সরঞ্জাম নির্বাচন: প্রতিটি ত্বকের ধরনের জন্য আলাদা আলাদা মেক আপের উপকরণ বর্তমান। আপনার ত্বক যদি তৈলাক্ত হয় এবং আপনি স্বাভাবিক ত্বকের মেক আপ ব্যবহার করে থাকেন তবে তা কোনও ভাবেই বেশি ক্ষণ স্থায়ী হবে না। তাই মেক আপের সরঞ্জাম কেনার সময় অবশ্যই নিজের ত্বক সম্পর্কে জানুন। তার পরে উপকরণ সম্পর্কে ভাল করে জেনে নিয়ে নিজের প্রয়োজনীয় উপকরণটি কিনুন।

মুখ ভাল পরিষ্কার করে তবেই মেকআপ করুন: আমাদের মুখে যদি তেল, ঘাম, ধুলো-ময়লা জমে থাকে, তাহলে তার ওপর মেক আপ করলে ত্বকে কখনওই সেটি ভাল করে বসবে না। কিছু সময়ের মধ্যেই তা নষ্ট হয়ে যাবে। তাই ত্বক পরিষ্কার না করে কখনই মেক আপ করা উচিত নয়| প্রথমে ফেশ ওয়াশ দিয়ে মুখ ধুয়ে নিন। তার পর ভাল করে স্ক্রাবার দিয়ে আপনার টি জোনটি পরিষ্কার করুন। এরপর ত্বকে তুলো দিয়ে টোনার প্রয়োগ করুন।  এতে আপনার ত্বক একেবারে ভিতর থেকে পরিষ্কার হয়ে যাবে এবং মেক আপ ভাল করে মুখের সঙ্গে মিলিয়ে যাবে। ফলে দীর্ঘস্থায়ী হবে আপনার পুজোর সাজ।

আরও পড়ুন: পুজোর সময় এই ক’টি নিয়ম মেনে চলুন, কাজল-আইলাইনার স্মাজ করবে না কিছুতেই

ত্বকে বরফ প্রয়োগ করুন: খুব ভাল করে মুখ পরিষ্কার করার পর এক টুকরো বরফ আপনার মুখে, ঠোঁটে, চোখের পাতার ওপর বুলিয়ে নিন। এতে আপনার ত্বক ভিতর থেকে ঠান্ডা হবে এবং ঘাম কম হবে। বরফ লাগানো হয়ে গেলে মুখ মুছে নিয়ে ময়েশ্চারাইজার মেখে নিন। এরপর দশ মিনিট অপেক্ষা করুন। ময়েশ্চারাইজার মাখার পর তা ত্বককে নমনীয় করে তোলে এবং ত্বকের পোরস ঢেকে দেয়। এই উপায় মেনে চললে আপনার মেক আপটি বেশি ক্ষণ স্থায়ী হবে।

প্রাইমার ও ফাউন্ডেশন প্রয়োগে সতর্কতা: মেক আপের প্রথম ধাপে মুখে খুব ভাল করে প্রাইমার লাগিয়ে নিন। তার পরে ফাউন্ডেশন প্রয়োগ করবেন। প্রাইমার না লাগালে আপনার ত্বক খুব বেশি ড্রাই হয়ে যাবে, মেক আপটি মোটেই দীর্ঘস্থায়ী হবে না। আজকাল বাজারে ‘লং লাস্টিং’ প্রাইমার ও ফাউন্ডেশন কিনতে পাওয়া যায়, ব্যবহার করুন সেই সব। কখনওই হাত দিয়ে মেকআপ ব্লেন্ড করবেন না। ব্যবহার করুন মেকআপ ব্রাশ ও পাফ। এতে মেকআপ খুব ভাল করে মিশে যাবে এবং বেশিক্ষণ স্থায়ী হবে।

এ ছাড়া চোখে কাজল যাতে না স্মাজ করে তার জন্য ফেস পাউডার চোখের নিচের অংশে প্রয়োগ করুন। কনসিলার প্রয়োগ করুন চোখের মেক আপ বেশিক্ষণ স্থায়ী করার জন্য। লিপস্টিক লাগানোর আগে লিপলাইনার লাগিয়ে নিন। লিপলাইনার লাগানোর পর ঠোঁটে পাউডার লাগান এবং অতিরিক্ত পাউডার ঝেড়ে তার পর লিপস্টিক বা লিপগ্লস লাগান।