ফ্যাশনে কম যান না পুরুষও, কী ভাবে নজর কাড়বেন মহিলা মহলে?

নিজস্ব প্রতিবেদন

১৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১৬:৪৮
শেষ আপডেট: ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১৬:৫৯

একটু বুদ্ধি খাটিয়ে কম খরচেও অনেক ফ্যাশনেবল হয়ে ওঠা যায়।


কে বলেছে মেয়েরাই কেবল ফ্যাশন সচেতন? আজকের দিনে দাঁড়িয়ে এ কথার কোনও অর্থই হয় না। আজকাল ছেলেরাও মেয়েদের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে ফ্যাশনের ব্যাপারে বিশেষ উত্সাহী। তবে নামীদামি ব্র্যান্ডেড পোশাক ও অ্যাক্সেসরিজ পরলে তবেই যে আপনি মারাত্মক ফ্যাশনেবল হয়ে উঠবেন এমন ধারণা একেবারেই ভুল!

একটু বুদ্ধি খাটিয়ে কম খরচেও অনেক ফ্যাশনেবল হয়ে ওঠা যায়। তাই পয়সা নয় বরং মগজ খরচের জোরেই তৈরি করুন স্বতন্ত্র স্টাইল স্টেটমেন্ট! পুজো আসতে আর বাকি মাত্র কটা দিন। এমন সময়ে মেয়দর মতো পুরুষরাও চাইবেন পুজোর ক’দিন নিজের সেরা সাজপোশাকে সকলের নজর কাড়তে। পোশাক কেবল মানুষের বাহ্যিক সৌন্দর্যরক্ষা করে তা-ই নয়, এটি মানুষের ব্যাক্তিত্বের বহিঃপ্রকাশও ঘটায়।

সুন্দর ও স্মার্ট দেখাতে খুব বেশি জমকালো পোশাক নয়, বরং ভরসা রাখুন ছিমছাম নকশার উপর। এ বার পুজোয় পুরুষদের স্টাইলে এমন ছিমছাম পোশাকই পোশাক বাছাই করার ক্ষেত্রে নিজের কমফর্টের বিষয়টিও সকলের আগে মাথায় রাখুন।

আরও পড়ুন: পুজোয় নতুন কোন ফেসিয়াল? আপনার ত্বকের জন্য কোনটা সেরা...​

পুজোর সময় শার্ট, প্যান্ট, জিনস, টি-শার্টের পাশাপাশি সাবেকি পাঞ্জাবি পরতেও ছেলেরা বেশ পছন্দ করেন। জিনসের সঙ্গে পরে ফেলুন একটা খাদি কিংবা কটনের কুর্তা অথবা পাঞ্জাবি। উত্সবের দিনে আপনার এই পরিধান অবশ্যই সবার নজর কাড়বে। শার্ট কেনার সময় সাদা, কালো আর নীল রং রাখুন আপন পছন্দের তালিকায়। পুজোর ফ্যাশনের কিছু জরুরি টিপ্‌সও সেই সঙ্গে মনে রাখতে হবে।

পোশাক দামি হোক বা না হোক, বরং হোক পরিপাটি। অনেক দাম দিয়ে পোশাক কিনেছেন অথচ কোঁচকানো শার্ট পরেই বেড়িয়ে পরলেন প্যান্ডেল হপিংয়ে। তা হলে কিন্তু আপনার সাজ একেবারে মাটি। তাই পোশাক পরার আগেই কোনও কারণে ভাঁজ পরলে ইস্ত্রি করে পরিপাটি করে রাখুন।

অনেকেই প্রিন্টেড শার্ট পরতে পছন্দ করেন। সে ক্ষেত্রে মাথায় রাখুন খুব বড় মাপের মোটিফ প্রিন্ট যেন কখনওই আপনার শার্টে না থাকে। হালকা রঙের শার্টের উপর ছোট গাঢ় রঙের মোটিফেই আপনি পেতে পারেন স্মার্ট লুক।

শার্ট পরার ক্ষেত্রে অনেক সময়ই কলারে ভাঁজ পড়ে যায় তাই কলারের নীচে বোতাম থাকে এমন শার্ট কিনুন। নইলে কলারের নীচে ডাবল টেপ লাগিয়ে নিলেও মিলবে সমস্যার সমাধান।

সাজগোজের পাশাপাশি পারফিউম বাছাইয়ের ক্ষেত্রে যেন কোনও খুঁত না থাকে। পোশাক পরার আগে শরীরে বডি স্প্রে বা রোল অন লাগাতে ভুলবেন না। শুধুমাত্র সেখানেই থেমে থাকলে হবে না। পোশাকের উপরেও শক্তিশালী সুগন্ধের পারফিউম ব্যবহার করুন।

আরও পড়ুন: সুতির নকশা ও সুতির কাপড়েই বাজিমাত!​

পুজোর দিন দুয়েক আগে স্যাঁলোতে গিয়ে একটা দামি ফেসিয়াল করিয়ে ফেললেন অথচ চুলের কাট একেবারেই আপনার মুখের গড়নের সঙ্গে মানানসই হল না। চুলের কাটের ব্যপারে তাই সব সময় সতর্ক থাকুন। একটা মানানসই হেয়ার কাট আপনাকে দিতে পারে ফ্যাশনেবল লুক।

চুলের পাশাপাশি আপনার দাড়ির দিকেও নজর দিতে ভুলবেন না। অনেককে একেবারে ক্লিন শেভে ভাল দেখায়, আবার অনেককেই দাড়ি-গোঁফ রাখলেই বেশি ভাল লাগে। তবে দাড়ি-গোঁফ রাখলে তা যেন অবশ্যই ট্রিম করা থাকে সে বিষয় সতর্ক থাকুন।

জুতোর দিকে অবশ্যই নজর রাখুন। জুতো মলিন হয়ে এলে ভাল করে করে পালিশ করিয়ে নিতে ভুলবেন না। জিনসের সঙ্গে বুট কিংবা কিটো জুতো পরতে পারেন। আর পাঞ্জাবির ক্ষেত্রে স্যান্ডেল পরাটাই শ্রেয়।

পুজোর সময় দিনের সাজে সানগ্লাসটি ক্যারি করতে ভুলবেন না। সাবেকি সাজ হোক কিংবা ক্যাজুয়াল লুক— সব ক্ষেত্রেই দিনের বেলা সানগ্লাস কিন্তু লাগবেই! ত্বকও বাঁচবে, ফ্যাশনও হবে।

ছবি সৌজন্যে: সোশ্যাল মিডিয়া