ইনস্টাগ্রামের মেক আপ টিপসে জমে যাক পুজোর সাজ!

পরমা দাশগুপ্ত

১৫ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১৭:০০
শেষ আপডেট: ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১৪:৩৪

জলদি মেক আপ থেকে মঞ্চের মানানসই সাজ, বিয়েবাড়ির সাজগোজ থেকে কনের রূপটান-মিলে যাবে সবেরই টিপস।


গোটা লকডাউন কেটে গিয়েছে ভিডিয়ো কলে সাজগোজ করে। এখনও দরকার ছাড়া খুব একটা বেরচ্ছেন, তেমনটা নয়। পুজোতেও যে ঘোরাঘুরি হবে, সেটাও ঠিক নেই এখনও। তা বলে কি সাজ হবে না? খুব হবে! সঙ্গে জমিয়ে মেক আপও। আর তাই এই বেলা বরং ঝটপট শিখে ফেলুন মেক আপে নজর কাড়ার কিছু টিপস।

পার্লার যাচ্ছেন না? কুছ পরোয়া নেই! ইনস্টাগ্রাম বা ইউটিউব তো আছে। আজকাল এই সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মগুলোতে বহু মেক আপ শিল্পীই শেয়ার করছেন প্রশিক্ষণ ভিডিয়ো।

জলদি মেক আপ থেকে মঞ্চের মানানসই সাজ, বিয়েবাড়ির সাজগোজ থেকে কনের রূপটান-মিলে যাবে সবেরই টিপস। রয়েছে মেক-আপে হাতেখড়ি কিংবা নিজের ভাবনা ও দক্ষতাকে ঘষেমেজে নেওয়ার সুযোগও।

আপনার জন্যই ইনস্টাগ্রামের হাজারো টিপসের ভিড় থেকে বাছাই করা রইল মেক আপে নজরকাড়া হয়ে ওঠার বেশ কিছু উপায়-

  • প্রত্যেকের মুখের আকার, ত্বকের রং বা ধরন আলাদা। যে কোনও মেক আপ টিপস পেলেই হল না, আগে দেখে নিন তা আপনার মানানসই কি না। মেক আপ করার সময় এ বিষয়টা খেয়াল রাখলে নির্ভুল হবে আপনার রূপটান।

আরও পড়ুন: পুজোয় এই সব নেল আর্টই ভাইরাল হতে পারে সোশ্যাল মিডিয়ায়

  • বিয়ে বাড়ি বা পার্টিতে হয়তো খেয়াল করেছেন, কারও কারও মুখের মেক আপের সঙ্গে গলার বা ঘাড়ের রঙের অনেকটা ফারাক হয়ে যায়। সেটা ভাল দেখায় না। মেক আপ করার সময় গালের রং নয়, ফাউন্ডেশন বেছে নিন ঘাড়ের রঙের সঙ্গে শেড মিলিয়ে। তাতে এই সমস্যাটা এড়ানো যাবে।
  • ত্বকের নিজস্ব জেল্লাই ভালবাসেন বেশি? ব্লাশ ব্যবহারের আগে বড় আকারের ফোলা চেহারার ব্রাশ দিয়ে হাইলাইট লাগান গালে। দেখুন স্বাভাবিক জেল্লায় কেমন চকচকে দেখায় আপনার গাল দুটো!

আরও পড়ুন: সেরামিকের এই সব গয়নায় বাজিমাত পুজোর ফ্যাশনে

চোখের পাতার উপরে কনসিলার লাগিয়ে তার উপরে আই শ্যাডো ব্যবহার করুন।

  • কনসিলার লাগান চোখের রেখার ঠিক নীচে সরু করে, অর্ধচন্দ্রাকারে। তার পরে গালের উপর নেমে আসা বাকি অংশটায় লাগান উল্টোনো ত্রিভুজের আকারে। এতে মুখ উজ্জ্বল দেখাবে বেশি।
  • এই প্রথম কনট্যুরিং করছেন? মাথায় রাখুন, এর নিয়ম কিন্তু সকলের জন্য এক নয়। আপনার ত্বকের রং যদি হয় ফর্সা বা মাঝারি, তা হলে ক্রিমের বদলে লাগান পাউডার। সেই সঙ্গে ফাউন্ডেশন বাছতে হবে ত্বকের চেয়ে দুই শেড গাঢ় রঙে।
  • চোখের পাতার উপরে আগে কনসিলার লাগিয়ে তার উপরে আই শ্যাডো ব্যবহার করুন। এতে আই শ্যাডোর রংটাও একটু গাঢ় হবে, টিকেও থাকবে বেশিক্ষণ।
  • ফাটা ঠোঁটের যত্ন নেওয়াটা অভ্যাস করে ফেলুন। যত ভাল বা যত সুন্দর শেডের লিপস্টিকই লাগান না কেন, ঠোঁট ফাটা বা চামড়া ওঠা থাকলে সব মাটি! আর তাতে সাজেরও সাড়ে সতেরোটা বাজতেই পারে। 
  • আজকাল ম্যাট লুকেরই কিন্তু কদর বেশি। ম্যাট লিপস্টিক না থাকলে আপনার গ্লসি লিপস্টিককেই দিব্যি কাজে লাগাতে পারেন। ঠোঁট আর্দ্র করে নিন লিপ বাম বা ময়শ্চারাইজারে। তার উপরে লাগান কনসিলার। এ বার তার উপর দিয়ে আপনার গ্লসি লিপস্টিক লাগালেই দেখবেন তা হয়ে উঠেছে একই শেডের ম্যাট লিপস্টিক।

আরও পড়ুন: পুজোর সাজে ব্যাগও চাই, বাছুন কিনুন গুণ জেনে

কী ভাবছেন? পুজোর আগে টিপসগুলো এক বার পরখ করে দেখবেন নাকি? মহড়ার মতো?