অস্বস্তির পিলার সাজুক ভাবনার রঙে, হোক অন্দরসজ্জার মানানসই

সুদীপ ভট্টাচার্য

১৬ অক্টোবর, ২০২০, ১৭:০৯
শেষ আপডেট: ১৭ অক্টোবর, ২০২০, ০৯:২২

অন্দরসজ্জার অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বিষয় পিলার, তা নিয়ে সামান্যতম সন্দেহও নেই।


দরকারে কিন্তু অযাচিত ভাবে তিনি এসে পড়েন। এমন বিনা নোটিসে তার আগমন যে, কী করে তাকে আপ্যায়ন জানানো যায়, সেটাই বুঝে ওঠা যায় না। সমস্ত দৃষ্টিসুখের মধ্যিখানে তাকে সামলানোটাই সব চাইতে বড় চ্যালেঞ্জ হয়ে পড়ে।

আলোচনার বিষয় পিলার বা স্তম্ভ। অন্দরসজ্জার অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বিষয় পিলার, তা নিয়ে সামান্যতম সন্দেহও নেই। এমনিতে দেওয়ালের আড়ালে ঢেকে যাওয়া পিলার নিয়ে খুব একটা বেশি সমস্যা হয় না। সেগুলোকে খুব সহজেই ম্যানেজ করা যায়। মুশকিলটা হয়ে যায় ঘরের মধ্যে থেকে যাওয়া কোনও পিলার নিয়ে।

আর্কিটেক্ট বা সিভিল ইঞ্জিনিয়ার তাঁদের স্ট্রাকচারাল প্ল্যানিং-এ পিলারের প্রয়োজনীয়তার লে আউট করেন। সাধারণত সে সব এমন ভাবে নকশা করা হয়, যাতে দেওয়ালের আড়াল পায়। কিন্তু কখনও সখনও পিলার ঘরের মধ্যে পড়ে যাওয়ার ঘটনাও কম নয়। সেই পিলারের সবকটা দিকই বাইরে থেকে দেখা যায়, কোনও ভাবে তাকে আড়াল করা সম্ভব নয়। এমন পরিস্থিতি অস্বাভাবিক নয়। আজকালকার ফ্ল্যাটে খুব একটা দেখা না গেলেও অনেকের বাড়িতেই এমন অস্বস্তিকর পিলারের অধিষ্ঠান।

আরও পড়ুন: পুজোর আগেই চটজলদি ঘর গোছান, রইল টিপস

কী ভাবে সামলাবেন এমন পিলার?

এমনিতে পিলার দেওয়ালের আড়ালে রাখার চেষ্টা হয় বেশি। বাইরের ঘর আর শোয়ার ঘরের মাঝখানের পিলার কে পাঁচিল দেওয়ার পরের বাড়তি অংশটা ঘরের ভিতর দিকেই রাখতে চান আর্কিটেক্ট, যাতে বাইরের দিকের ধারটা না দেখা যায়। ভাল অন্দরসজ্জায় কখনও পিলারের ধার দৃশ্যমান হয় না। কখনও প্যানেলিং করে, কখনও ওয়ার্ডরোবের সঙ্গে একত্র করে, কখনও ড্রেসিং টেবিলের প্যানেলিংয়ের পিছনে পিলারকে আড়াল করে নেওয়া হয়। ডিসপ্লে ইউনিটের সঙ্গে কোনও পিলার থাকলে সেটাকেও প্যানেলিং করে এমন ভাবে মুড়ে দেওয়া হয় যে, মনে হয় ওটাও টানা ক্যাবিনেটের অংশ।

পিলার বিভিন্ন ভাবে সাজিয়ে নেওয়া যায়। দেওয়ালের আড়ালে থাকা পিলারের কিছু অংশ বাইরে বেরিয়ে থাকলে সেটা প্যানেলিং করে ঢেকে দেওয়া হয়। কিন্তু মুশকিল হয় পিলারের অনেকটা বাইরে দৃশ্যমান থাকলে। তখন তাকে দৃষ্টিনন্দন করে তুলতে না পারলে ঘরের শোভা নষ্ট হয়। প্রোজেক্টেড পিলার কখনও ডেকরেটিভ ইমপোর্টেড টাইলস বা গ্রানাইট, কখনও প্লাইয়ের সঙ্গে ল্যামিনেট, ভিনিয়ার বা ওয়ালপেপার কিংবা ভিনাইল- এ সব বিভিন্ন রকম ফিনিশ করা হয়। স্টিল বা অ্যাক্রিলিক ইত্যাদিতে জাফরির কাজ করেও পিলার সাজানো যায়। তার ভিতরে আলোর খেলায় একটা মায়াবি পরিবেশ তৈরি হবে ঘরে। সাজাতে পারেন ফটোগ্রাফ কিম্বা পেন্টিং দিয়েও।

আরও পড়ুন: থাক হোম থিয়েটারের ঘর, বাড়িতেই পান সিনেমা হলের মজা

এমন হরেক সৃজনশীল ভাবনায় সেজে উঠুক বেখাপ্পা পিলার। আপনার অন্দরসজ্জার তারিফ না করে পারবেন না অতিথিরা!