ত্বক বাঁচাতে সিঁদুর খেলার আগে ও পরে মেনে চলুন এ সব নিয়ম

সুমা বন্দ্যোপাধ্যায়

০৮ অক্টোবর, ২০১৯, ১৭:৫৯
শেষ আপডেট: ০৮ অক্টোবর, ২০১৯, ১৮:১০

সিঁদুর খেলার আগে ও পরে ত্বক বাঁচানোর উপায় বাতলালেন ত্বক বিশেষজ্ঞ সঞ্জয় ঘোষ।


দেবী বরণ করার সময় সিঁদুর না খেললে চলে না। এ দিকে এর প্রভাবে অনেকেরই ত্বকে র‌্যাশ-সহ নানা সমস্যা হতে পারে। তাই সিঁদুর খেলার আগে ও পরে ত্বক বাঁচানোর উপায় বাতলালেন ত্বক বিশেষজ্ঞ সঞ্জয় ঘোষ।

দশমী মানেই মা দূর্গার কৈলাশে ফিরে যাওয়ার পালা। বিসর্জনের আগে দেবী বরণের পালা। ইতিহাস বলছে প্রায় ৪০০ বছর আগে বাড়ির গৃহিণীরা বিজয়ার আগে স্বামীর দীর্ঘায়ু কামনা করে দেবী বরণের পর একে অপরের সিঁথিতে সিঁদুর পরিয়ে দিতেন। সেই ট্র্যাডিশন চলছে এখনও। তবে এখন কপাল আর সিঁথিতেই থেমে নেই, সিঁদুর মাখা হয় মুখ-গলা-কপাল জুড়ে। আর এতেই আছে বিপত্তির সম্ভাবনা। ত্বকের কন্ট্যাক্ট ডার্মাটাইটিস থেকে শুরু করে কেমিক্যাল লিউকোডার্মা অর্থাৎ শ্বেতী হওয়ার ঝুঁকি থাকে। আসলে সিঁদুরে আছে পারদ অর্থাৎ মার্কারি, লেড বা সীসা, ক্রোমিয়াম ও ক্যাডমিয়াম-সহ এমন কিছু রাসায়ানিক যা আমাদের ত্বকের সংস্পর্শে এলে নানা বিরূপ প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হবার ঝুঁকি বাড়ে।

তবে এক দিন অল্পস্বল্প সিঁদুর লাগালে সচরাচর কোনও সমস্যা হওয়ার কথা নয়। কিন্তু একসঙ্গে অনেক বেশি পরিমাণে সিঁদুর ঘষে লাগালে ত্বক ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার ঝুঁকি বাড়ে। যারা নাগাড়ে সিঁদুর ব্যবহার করেন তাঁদের ঝুঁকি আরও বেশি। কন্ট্যাক্ট ডার্মাটাইটিস অর্থাৎ কোনও কিছুর সংস্পর্শে সংবেদনশীল ত্বক জ্বালা করে ও র‍্যাশ বেরয়। বেশি সিঁদুর ঘষে ত্বকে মাখালে এর থেকে র‍্যাশ হওয়ার ঝুঁকি থাকে। এমনকি, ত্বকের সিঁদুর লাগা অংশের মেলানিন স্তর ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে যায়। এর ফলে ত্বকের সেই নির্দিষ্ট অংশ দুধ সাদা হয়ে যায়, যার ডাক্তারি নাম ‘কেমিক্যাল লিউকোডার্মা’, সাধারণ মানুষ একে শ্বেতী বলেন। তবে ত্বক সব থেকে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয় সিঁদুর তোলার সময়। সাবান ঘষে সিঁদুর তুলতে গিয়ে ত্বকের উপরের পরত নষ্ট হয়ে গিয়ে র‍্যাশ ও জ্বালা করে। তাই কী কী ব্যবস্থা নেওয়া নিলে ত্বক বাঁচবে তা জেনে নেওয়া দরকার।

আরও পড়ুন:পুজোয় চিকিৎসকের অভাব হতে পারে, কিছু সমস্যা এ ভাবেই সামলান​

আরও পড়ুন:পুজোয় খাওয়াদাওয়ায় প্রচুর অনিয়ম? মেদ জমবেই না এ সব মানলে​

  • সিঁদুর খেলতে যাওয়ার আগে মুখে-গলায় হাতে ক্যালামাইন  লোশন অথবা ময়েশ্চারাইজার লাগান।

  • সিঁথিতে নারকেল তেল লাগালে ভাল হয়।

  • এমন ভাবে সিঁদুর খেলবেন না যাতে চোখে বা মুখে সিঁদুর চলে যায়।

  • বাচ্চাদের ও বয়স্ক মানুষদের এই খেলা থেকে দূরে রাখাই ভাল।

  • সিঁথিতে হালকা করে সিঁদুর লাগিয়ে খেলা সারাই ভাল, মুখে-গালে একগাদা সিঁদুর মাখানো ঠিক নয়।

  • মিষ্টিতে সিঁদুর লাগলে তা খাবেন না।

  • সিঁদুর খেলার পর তোলার সময় হালকা ময়েশ্চারাইজার অথবা তেল লাগিয়ে ভিজে তুলো দিয়ে মুছে নিন। এর পর জল দিয়ে ধুয়ে নিন। তারপর মৃদু সাবান দিয়ে পরিষ্কার করুন। শুকনো কাপড় দিয়ে ঘষে অথবা বারবার সাবান লাগিয়ে সিঁদুর তুলতে গেলে ত্বকের সমস্যার ঝুঁকি থাকে। পুজোয় ভাল থাকুন, ভাল রাখুন।