অনলাইনেই কিনছেন পুজোর উপহার? এ সব না মানলে ঠকতে পারেন

নিজস্ব প্রতিবেদন

১০ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১৭:৪৩
শেষ আপডেট: ২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১৭:৫৬

অনলাইন শপিংয়ে আমরা অনেক সময় নানা সমস্যায় পড়ি। প্রতারিতও হতে হয় অনেক ক্ষেত্রে। সে সব থেকে বাঁচতে ও নির্বিঘ্নে অনলাইন শপিং করতে চাইলে কিছু বিশেষ জিনিস মাথায় রাখুন।


কর্মব্যস্ত যুগে বাজারে দোকানে গিয়ে দেখেশুনে, নেড়েচেড়ে কেনার প্রচলন এখন অনেক কমে গিয়েছে। তার বদলে জায়গা করে নিয়েছে অনলাইন শপিং। স্মার্টফোনের যুগে এখন ঘরে বসেই কয়েকটা ক্লিকে কিনে নেওয়া যায় পছন্দের জিনিস। আস্ত একটা ফ্ল্যাট থেকে শুরু করে জামাকাপড়— সব কিছু কেনাকাটার হদিস মেলে এখানে। তাই সময় বাঁচাতে ও নানা ছাড়ের লোভে পুজোর বাজারে এখন অনলাইন শপিং অনেকটাই জায়গা দখল করে নিয়েছে।

অনলাইন শপিংয়ের বিভিন্ন সাইট থেকে বেছে নেওয়া যায় রকমারি পোশাক, জুতো, রূপজ্জার উপকরণ। সঙ্গে থাকে লোভনীয় অফারও। ভারী জিনিস বয়ে আনারও ঝক্কি নেই। বরং কেনাকাটার সংস্থাই বাড়ি বয়ে পৌঁছে দেবে জিনিস। এত সুযোগ একসঙ্গে মেলায় ক্রমেই জনপ্রিয় হচ্ছে অনলাইন শপিং।

তবে সুবিধা নানাবিধ থাকলেও এই অনলাইন শপিংয়ে আমরা অনেক সময় নানা সমস্যায় পড়ি। প্রতারিতও হতে হয় অনেক ক্ষেত্রে। সে সব থেকে বাঁচতে ও নির্বিঘ্নে অনলাইন শপিং করতে চাইলে কিছু বিশেষ জিনিস মাথায় রাখুন।

আরও পড়ুন: পুজোর আগে এই ডায়েট মেনে চলুন! তা হলেই পাবেন নজরকাড়া ফিটনেস!

রেটিং ও মতামত: যে জিনিসটি পছন্দ করেছেন তার রেটিং কত আছে , জিনিসটি সম্পর্কে অন্য গ্রাহকরা কি মতামত দিয়েছেন তা দেখুন। মতামত ভরসাযোগ্য মনে হলে তবেই তা কিনুন। কেবল ভাল লেখা মন্তব্যই নয়, খুঁটিয়ে পড়ন সমালোচনার কথাও। যে দিকে পাল্লা ভারী, সে দিকেই ভরসা রাখুন।

বিশ্বাসযোগ্যতা:  এই ক্ষেত্রে সম্পূর্ন কেনাকাটা করতে হয় ছবি দেখে। পোশাকের রং, মাপ কোনওটাই হাতে দেখে বিচার করা যায় না। অনেক সময়ই সঠিক জিনিস এসে পৌঁছয় না। মাপেও ঠকতে হয়, পরে বদলাতে গেলেও নানা ঝক্কির মুখোমুখি হতে পারেন। টাকা রিটার্নের সময়ও জট আসতে পারে কোনও কোনও সাইটে। তাই আগে ঠকেছেন এমন সাইট থেকে পুনরায় জিনিস না কেনাই ভাল।

দরদাম: অনলাইন শপিংয়ের ক্ষেত্রে দরদাম করার কোনও সুযোগ থাকে না। তবে পছন্দের জিনিসটির দাম একাধিক সাইট থেকে তু়লনা করে নিতে পারবেন।

আরও পড়ুন: পুজোর ভিড়-গরমেও সুগন্ধীর গন্ধ এই ভাবে টিকিয়ে রাখুন বেশি ক্ষণ

শিপিং চার্জঅনেক সময় পণ্যটির দাম কম থাকলেও শিপিং চার্জ যোগ করে তার দাম অনেক বেশি হয়ে যায়। এগুলিকে ‘হিডন চার্জ’ বলে। কেনার সময় সেই দিকেও খেয়াল রাখতে হবে।

বদল: অনেক সময়ই সঠিক পণ্যটি এসে পৌছায় না। আর তা বদল করতে গিয়ে সমস্যায় পড়তে হয়। তাই যে সাইট থেকে কেনাকাটা করছেন তার রিটার্ন পলিসি আগে থেকে জেনে রাখুন।